July 24, 2024, 6:07 am
শিরোনামঃ
কোটা সংস্কার আন্দোলনের নামে স্বাধীনতা বিরোধী অপশক্তির দেশব্যাপী নৈরাজ্য প্রতিবাদে মুক্তিযোদ্ধা সন্তানদের মানববন্ধন উলিপুরের থেথরাই বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের সাবেক প্রধান শিক্ষকের মৃ/ত্যু : লাখো মানুষের ভীর শাহজাদপুরে দেশী মদের দোকান সিলগালা করায় মুসল্লিদের মাঝে মিষ্টি বিতরণ জামালপুর জেলায় ধান – চাউল সংগ্রহের চিত্র ২টি আগ্নেয়াস্ত্র ও ২০৬ রাউন্ড গুলিসহ তিনজনকে গ্রেফতার করেছে সিটিটিসি ১৬২ সদস্যকে ডিএমপির কল্যাণ তহবিল হতে আর্থিক অনুদান প্রদান উপবৃত্তির অর্থ পাইয়ে দিতে প্রতারণার ফাঁদ, মাউশির জরুরি বিজ্ঞপ্তি বিশেষ সম্মাননা পুরস্কার পেলেন ময়মনসিংহ জেলা গোয়েন্দা শাখা ডিবি”র ওসি ফারুক হোসেন ঘুরেফিরে প্রভাবশালীরা ঢাকায়, গণপূর্তের ৫ নির্বাহী প্রকৌশলীর বদলি সিটিসি ডা: গোলাম রব্বানীই শেষ কথা: প্রাণিসম্পদ ও ডেইরী উন্নয়ন প্রকল্পে কসাইখানা নির্মাণে ভয়াবহ দুর্নীতি
নোটিশঃ
আপনার আশেপাশের ঘটে যাওয়া খবর এবং আপনার ব্যবসার বিজ্ঞাপন প্রচারের জন্য যোগাযোগ করুন মানবাধিকার খবরে।

কাজিপুরে পাওনা টাকা চাইতে গিয়ে হামলা মামলার শিকার এক যুবক

Reporter Name

কাজিপুর প্রতিনিধিঃ- এক সাথে কাঠ মিস্ত্রির কাজ করে ওস্তাদের নিকট পাওনা টাকা চাওয়ায় টাকা না মিলে মিলেছে গালমন্দ. হামলা ও মামলা। এই ঘটনায় ওই অসহায় যুবক বিচার চেয়ে মাতব্বরদের দ্বারে দ্বারে ঘুরছে। এদিকে হামলার ভয়ে নতুন করে কাজের যেতে পারছে না ওই যুবক। এই ঘটনাটি ঘটেছে সিরাজগঞ্জের কাজিপুর উপজেলার সোনামুখী ইউনিয়নের পরানপুর গ্রামে।

ভুক্তভোগীর নাম পাখি আকন্দ (২৫)। সে ওই গ্রামের শফিকুল ইসলামের পুত্র। খবর পেয়ে শনিবার দুপুরে সরেজমিন পাখির বাড়িতে গিয়ে জানা যায়, একই গ্রামের পশ্চিম পাড়ার কামাল হোসেনের পুত্র আলমগীর হোসেন(২১) পাখিকে সাথে নিয়ে টাঙ্গাইলে কাঠ মিস্ত্রির কাজ করে আসছিলো। সম্প্রতি পাখির প্রয়োজনে আলমগীরের নিকট তার পাওনা টাকা চাইলে সে টাকা না দিয়ে তালবাহানা করতে থাকে। এ নিয়ে উভয়ের মধ্যে কথা কাটাকাটি হয়।এরই সূত্র ধরে পাখিকে অকথ্য ভাষায় গালাগাল করে এবং প্রাণনাশের হুমকি দেয় আলমগীর। সাংবাদিকদের পাখি জানান, পরশু আমি কাজিপুর নির্বাচন অফিসে যাই। সেখানে আমাকে একা পেয়ে আলমগীর লোকজন নিয়ে আমাকে ধরে ফেলে এবং টাকা চাইলে জানে মেরে ফেলার হুমকি দেয়।

পাখির নানা তোজাম জানান, আমি এই বিষয়টি সুরাহার জন্যে আলমগীরের বাড়িতে গেলে সে নেশা করে মাতাল অবস্থায় আমাকে মারার জন্যে শাবল নিয়ে আক্রমণ করে। পরে ওর বাবা কামাল আমাকে দ্রুত চলে যেতে বলে। তিনি আরও জানান, আলম খান আলম গীর একজন নেশাখোর ছেলে। সে ইতো পূর্বেও গ্রামে নানা দুর্ঘটনা ঘটিয়েছে। পুরো গ্রামের মানুষ জানে সবই।পাখিকে টাকা না দিয়ে উল্টো আলমগীর ও তার পরিবার আমাদের ফাঁসানোর জন্যে নিজেদের ঘরের বেড়া কুপিয়ে আমাদের নামে মামলা করতে যায়। কিন্তু ঘটনা মিথ্যে বিধায় থানায় মামলা করতে না পেরে আলমগীর কোর্টে মামলা করেছে।

এসময় পাখি জানায়, আলমগীর দুরন্ত প্রকৃতির মানুষ। কিছুদিন আগেই সে হাতুড়ি দিয়ে একজনের মাথায় আঘাত করে অর্ধলক্ষ টাকা জরিমানা দিয়েছে। টাকা চাইলে না দিয়ে উল্টো কোর্টে গিয়ে আমাকেসহ আমার ভাই, দুই মামা ও নানাকে আসামী করে ডাকাতি চাঁদাবাজির মামলা দিয়েছে।ওর আপন চাচা হত্যা মামলার আসামী। কাজেই আমি এর সঠিক বিচার চাই এবং প্রহসনমূলক মামলা থেকে নিস্কৃতি পেতে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের দৃষ্টি আকর্ষণ করছি।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *


Our Like Page