July 24, 2024, 6:14 am
শিরোনামঃ
কোটা সংস্কার আন্দোলনের নামে স্বাধীনতা বিরোধী অপশক্তির দেশব্যাপী নৈরাজ্য প্রতিবাদে মুক্তিযোদ্ধা সন্তানদের মানববন্ধন উলিপুরের থেথরাই বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের সাবেক প্রধান শিক্ষকের মৃ/ত্যু : লাখো মানুষের ভীর শাহজাদপুরে দেশী মদের দোকান সিলগালা করায় মুসল্লিদের মাঝে মিষ্টি বিতরণ জামালপুর জেলায় ধান – চাউল সংগ্রহের চিত্র ২টি আগ্নেয়াস্ত্র ও ২০৬ রাউন্ড গুলিসহ তিনজনকে গ্রেফতার করেছে সিটিটিসি ১৬২ সদস্যকে ডিএমপির কল্যাণ তহবিল হতে আর্থিক অনুদান প্রদান উপবৃত্তির অর্থ পাইয়ে দিতে প্রতারণার ফাঁদ, মাউশির জরুরি বিজ্ঞপ্তি বিশেষ সম্মাননা পুরস্কার পেলেন ময়মনসিংহ জেলা গোয়েন্দা শাখা ডিবি”র ওসি ফারুক হোসেন ঘুরেফিরে প্রভাবশালীরা ঢাকায়, গণপূর্তের ৫ নির্বাহী প্রকৌশলীর বদলি সিটিসি ডা: গোলাম রব্বানীই শেষ কথা: প্রাণিসম্পদ ও ডেইরী উন্নয়ন প্রকল্পে কসাইখানা নির্মাণে ভয়াবহ দুর্নীতি
নোটিশঃ
আপনার আশেপাশের ঘটে যাওয়া খবর এবং আপনার ব্যবসার বিজ্ঞাপন প্রচারের জন্য যোগাযোগ করুন মানবাধিকার খবরে।

চায়ের দোকানি হিরণ সহ বিভিন্ন ব্যক্তির ফোন উদ্ধার করে দিলো কোতোয়ালী মডেল থানা পুলিশ

Reporter Name

প্রথম বাংলা – হারানো মোবাইল ফোন খুঁজে মালিকের কাছে পৌঁছে দেয়ার উদ্যোগ নেয় ময়মনসিংহ কোতোয়ালী মডেল থানা পুলিশের এএসআই আমীর হামজা।যে উদ্যোগ দেখে ইতোমধ্যে বিভিন্ন জেলার পুলিশ এ কার্যক্রম শুরু করেছে।রবিবার (৩১ অক্টোবর) সকাল সাড়ে ১১টায় কোতোয়ালী মডেল থানা ওসি শাহ্ কামাল আকন্দ,নগরীর চায়ের দোকানী হিরণ,সাবেক মেম্বার ইসমাইল হোসেন,মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে রেজিস্টার আফরোজা বেগম,কলেজ ছাত্র ফারুক,চাকরী জীবি মারুফ,সালমান,কৃষক রাকিবুল,ছাত্র সাজিদ,ব্যাবসায়ী জনি,বাদশা ফার্ণিচার ব্যাবসায়ী মালিকেরহাতে তাদের সখের হারানো মোবাইল তোলে দেন।

এপযন্ত কোতোয়ালী মডেল থানা গত এক বছরে ৭৫০ টি মোবাইল উদ্ধার করে দেওয়া হয়েছে। মোবাইল উদ্ধার করে এএসআই আমীর হামজা নিজে সুনাম কুড়াচ্ছে ঠিক সুনাম বৃদ্ধি করছে জেলা পুলিশের।এএসআই আমীর হামজাকে অবশ্যই পুলিশের শ্রেষ্ঠ পদক পদকের দাবী জানাই ময়মনসিংহবাসী। হারানো ফোন খুঁজে বের করার এই চ্যালেঞ্জ জয় করা তিনি দায়িত্ব বলে মনে করেন।

মোবাইল ফোন পেয়ে চায়ের দোকানি হিরণ জানান, আমি একজন ছোট চায়ের দোকানি। আমি অনেক শখ করে অল্প অল্প টাকা জমিয়ে শখের মোবাইল ফোনটি কিনি। মোবাইল ফোনটি হারিয়ে যাওয়ার পর মনটা অনেক খারাপ হয়ে যায়। আজ হারিয়ে যাওয়া মোবাইল ফোনটি হাতে পেয়ে অনেক খুশি হয়েছি। আমি কোতোয়ালী থানার ওসি স্যারসহ সকল পুলিশের প্রতি কৃতজ্ঞা জানান।

কোতোয়ালী মডেল থানার ওসি শাহ্ কামাল আকন্দ গণমাধ্যম কে জানান, মানুষকে সতর্ক করতে উদ্যোগ নিয়েছে থানা পুলিশ। কোতোয়ালী পুলিশ সার্বক্ষণিক আন্তরিক হয়ে জনগণের সেবা দিয়ে যাচ্ছে। মোবাইল উদ্ধারের পর কাগজপত্র যাচাই-বাছাই করে প্রকৃত মালিকের কাছে হস্তান্তর করা হয়। মালিকরা হারিয়ে যাওয়া মোবাইল ফোন ফেরত পেয়ে খুশি। এতে জনগণের মাঝে পুলিশের প্রতি আস্থা দিন দিন বাড়ছে। ফোনটি ফেরত পেয়ে হাসিমাখা মুখ দেখে আমরাও অনেক আনন্দিত। এভাবে প্রতিটি জনগণের পাশে থাকবে কোতোয়ালী থানা পুলিশ।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *


Our Like Page