December 11, 2023, 3:01 pm
শিরোনামঃ
কুড়িগ্রামে ঘন কুয়াশায় জনজীবন বিপর্যস্ত দ্বাদশ জাতীয় সাংসদ নির্বাচনকে সামনে রেখে মতবিনিময় সভা গোপালগঞ্জের বোড়াশীর মিটু মেম্বারের তান্ডবে গুরুতর আহত-১৬ সাবেক আইজিপি বীর মুক্তিযোদ্ধা মোঃ নূরুল আনোয়ারে ইন্তেকাল আইজিপির শোকসভা জাজিরা নির্বাচন অফিস যেনো ঘুষ-বাণিজ্যের কলঘর বাংলাদেশ অবসরপ্রাপ্ত পুলিশ অফিসার্স কল্যাণ সমিতি’র ২০২৩-২০২৫ নির্বাচন দ্বাদশ সংসদ নির্বাচনের তফসিল বৈধ: হাইকোর্ট ময়মনসিংহে ওসি শাহ কামাল আকন্দ এর বদলী জনিত বিদায় সংবর্ধনা জঙ্গি সংগঠন আনসার আল ইসলামের ৬ সদস্য গ্রেপ্তার: র‍্যাব দৌলতপুরে এক শতাংশ ভোটার সমর্থন দিতে পারেনি তিন স্বতন্ত্র প্রার্থী
নোটিশঃ
আপনার আশেপাশের ঘটে যাওয়া খবর এবং আপনার ব্যবসার বিজ্ঞাপন প্রচারের জন্য যোগাযোগ করুন মানবাধিকার খবরে।

ঈদের উপলক্ষে ভিজিএফ এর ১০ কেজি করে চাল বিতরণে দুর্ণীতি:

Reporter Name

সুলতানা রাজিয়া সান্ধ্য কবি: জাতীয় দৈনিক মুক্তিযুদ্ধ৭১ সংবাদ পত্রিকা: সিনিয়র রিপোর্টার।

দুর্ণীতির চরম শিখরে
উপজেলা উলিপুরের পান্ডুল ইউনিয়ন।

১৯ এপ্রিল (বুধবার) সকাল ১০টায় পান্ডুল ইউনিয়ন পরিষদে ভিজিএফ এর চাল বিতরণ করা হয়।

ঈদুল ফিতরের উপহার উপলক্ষে কুড়িগ্রাম জেলার উপজেলা উলিপুরে পৌরসভা সহ ১৪টি ইউনিয়নে ভিজিএফ এর চাল বিতরণ হচ্ছে, প্রতিটি পরিবারে ১০কেজি চাল বিতরণে কথা থাকলেও পান্ডুল ইউনিয়ন পরিষদে দুর্ণীতির অভিযোগ উঠেছে।
পাচ্ছেনা দরিদ্রপরিবার
এখানে শুধু দালালের কারবার।
মাঠ ঘুরে দেখা যায় অন্যান্য ইউনিয়নে হত দারিদ্রের মাঝে চাল বিতরণের অনিয়ম ধরা না পড়লেও পান্ডুলে তা স্পস্ট।

  • প্রতি একজনের হাতে ৩থেকে ৫, ৭, ১৫, ২০, করে কার্ডের স্লীপ জমা রয়েছে।
    ৫০টি স্লীপ ধারী একজনের কাছে জানতে চাইলে দৌঁড়ে পালায় আর বলতে থাকে আমার কাছে মাত্র ২০টি কার্ড।
    এইলোক পরিষদের কোন সদস্য নয় তবে জানা যায় তারা দালাল চক্র বটে।
    চোরের মত দৌঁড় দেখে হতবাক পরিষদের লোকজন।

আজকে কিছু ভিডিও তথ্যে জানা যায়,
পান্ডুল ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মোঃ আমিনুল ইসলাম
এই দালাল চক্র দিয়ে ভিজিএফ এর চাল তুলে নিচ্ছেন।
বিষয়টি জানতে চাইলে
চেয়ারম্যান আমিনুল ইসলাম ক্ষিপ্ত হয়ে উঠেন
এবং চাল দেয়া বন্ধ করে দেন।
হতদরিদ্রদের মাঝে সঠিক ভাবে চাল পৌঁছেনা এমন অভিযোগ এলাকায় আনাচে কানাচে।
অভিযোগ কারীগণ নিজেকে প্রকাশ করতে রাজি নন।
উলিপুরের পান্ডুল দুর্ণিনীতে ভরপুর
এ নিয়ে সবার মুখে ছন্দ গানে উঠেছে সুর।

  • চাল পাওয়া স্লীপ ধারীরা অনেকে বলেন,
    প্রতিজনকে চাল মেপে দিলে ভাল হয়।
    কারণ চেয়ারম্যান আমিনুল ইসলাম একজনের হাতে চালের বস্তা দিচ্ছেন তারা আমাদের পাত্তা দিচ্ছেননা।
    এমনটি হলে শত শত দরিদ্রপরিবার এই ভিজিএফ এর চাল থেকে বঞ্চিত হবে।
    যারা হত দরিদ্র স্লীপ পাওয়ার যোগ্য পরিষদে
    এমন পরিবার খুবই কম
    চোখে পড়ে।

পরিষদে উপস্থিত নেই হতদরিদ্র পরিবার,
আছে শুধু টাউট- বাটপাড়।
ট্যাগ অফিসারের অনুপস্থিতে চাল বিতরণ করছেন ইউপি চেয়ারম্যান আমিনুল ইসলাম।
সাংবাদিক দেখে চাল দেয়া বন্ধ করেন।
এ বিষয়ে তথ্য জানতে চাইলে চেয়ারম্যান ক্ষিপ্ত হয়ে উঠেন।
বিষয়টি উপজেলা (ইউএনও ) শোভন রাংসা নির্বাহী কর্মকর্তা কে জানালে তিনি বলেন, বিষয়টি ক্ষতিয়ে দেখা হবে আপনি আরো ভাল করে তথ্য সংগ্রহ করে আমাদের জানান।

কুড়িগ্রাম জেলা প্রশাসন কে জানালে তিনি বলেন,
কোন দুর্ণীতি করার সুযোগ দেয়া হবেনা আমরা এই মুর্হতে খোঁজ নিচ্ছি।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *


Our Like Page