June 15, 2024, 1:25 am
শিরোনামঃ
এ জগৎ ভাই অল্প দিনের আর কয়টা দিন সবুর মনে প্রাণে বিশ্বাস করো কঠিন সাজা প্রভূর সংসদ সদস্য মোহিত উর রহমান শান্ত”র জন্মদিনে ইউসুফ আলীর শুভেচ্ছা ঈদ যাত্রা নিরাপদ ও নির্বিঘ্ন করতে সবাই এক সঙ্গে কাজ করছে : আইজিপি ত্রিশাল থানা পুলিশের অভিযানে ,দস্যুতা কাজে ব্যবহৃত ০২ টি প্রাইভেট কার জব্দ সহ সহ ০৬ জন গ্রেফতার ডিবি পুলিশের অভিযানে ময়মনসিংহে চোরাই ৬টি অটোরিক্সা ও ১টি মোটর সাইকেল উদ্ধার গ্রেফতার ১ পুলিশ পেশাদারিত্বের সাথে দায়িত্ব পালন করায় দেশে স্থিতিশীল অবস্থা বিরাজ করছে : আইজিপি ঢাকা জেলা আওয়ামীলীগের আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত ছাদ থেকে পড়ে প্রাণ গেল শিশু হজযাত্রীর ভূরুঙ্গামারীতে মাদক মামলায় মিথ্যা আসামি করায় থানার ওসি ও তদন্ত ওসিকে প্রত্যাহারের দাবী পরিবারের পুলিশ কমিশনারের সাথে ডিএমপির বিভিন্ন বিভাগের প্রধানদের এপিএ স্বাক্ষর
নোটিশঃ
আপনার আশেপাশের ঘটে যাওয়া খবর এবং আপনার ব্যবসার বিজ্ঞাপন প্রচারের জন্য যোগাযোগ করুন মানবাধিকার খবরে।

কুড়িগ্রামের আলোচিত সেই শিক্ষিকা অবশেষে বরখাস্ত

Reporter Name

কুড়িগ্রাম প্রতিনিধি

মোঃশাহজাহান খন্দকার

কতৃপক্ষের সামনে অন্যের সন্তানকে নিজের সন্তান হিসেবে উপস্থাপন করে মাতৃত্বকালীন ছুটি ভোগ করা প্রাথমিক বিদ্যালয়ের আলোচিত শিক্ষিকা আলেয়া সালমাকে সাময়িক বহিষ্কার করা হয়েছে। কুড়িগ্রামের নাগেশ্বরী উপজেলার মনিয়ারহাট সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে কর্মরত ছিলেন।

সম্প্রতি চাঞ্চল্যকর এ ঘটনাটি বিভিন্ন পত্রিকা ও ইলেকট্রনিক মিডিয়ায় প্রকাশিত হলে প্রাথমিক তদন্তে ঘটনার সত্যতা মেলায় নড়েচড়ে বসে জেলা শিক্ষা বিভাগ।

অনৈতিক কর্মকাণ্ডের জন্য আলোচিত ওই শিক্ষিকা আলেয়া সালমাকে সরকারি কর্মচারী (শৃংখলা ও আপিল) বিধিমালা ২০১৮এর (৩) ধারা মোতাবেক সরকারি চাকুরি থেকে সাময়িক বরখাস্থ করেন কুড়িগ্রাম জেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার।

অনুসন্ধানী প্রতিবেদন প্রকাশের পর গত ৪ সেপ্টেম্বর সহকারী প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা এ কে এম তৌফিকুর রহমানকে চাঞ্চল্যকর ঘটনাটি তদন্তের দায়িত্ব দেন জেলা শিক্ষা অফিসার।

তদন্তে দুর্নীতির সত্যতা মেলায় অভিযুক্ত শিক্ষিকাকে গত ৬ সেপ্টেম্বর সাময়িক ভাবে বরখাস্থ করেন জেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা মো: শহিদুল ইসলাম। ৭ সেপ্টেম্বর থেকে ওই আদেশ কার্যকর হবে।

জেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার মো: শহীদুল ইসলাম শিক্ষিকাকে বরখাস্তের বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, প্রাথমিকভাবে ঘটনার সত্যতা পেয়েছে তদন্ত কমিটি।

তাই তাকে সাময়িক বরখাস্ত করে তার বিরুদ্ধে বিভাগীয় মামলা রুজু করা হয়েছে। এছাড়াও এই ছুটি নেবার বিষয়ে যারা ওই শিক্ষিকাকে সহযোগিতা করেছেন তাদেরকে বিভাগীয় শাস্তির আওতায় আনা হবে বলেও জানান তিনি।

এ বিষয়ে অভিযুক্ত শিক্ষিকার কোন বক্তব্য পাওয়া যায়নি।
উল্লেখ্য-আলেয়া সালমা কুড়িগ্রামের নাগেশ্বরী উপজেলার মনিয়ারহাট সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে কর্মরত শিক্ষিকা। তার স্বামী শফি আহমেদ স্বপন বগুড়ার গাবতলী উপজেলা কাগইল ইউনিয়ন পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান।তিনি ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাবেক আহ্বায়ক।

অভিযুক্ত শিক্ষিকা তার নিকটতম এক প্রতিবেশীর শিশুকে নিজের নবজাতক সন্তান হিসেবে কর্মকর্তা দের।সামনে উপস্থাপন করে চলতি বছরের ১৪ মার্চ থেকে ছয় মাসের মাতৃত্বকালীন ছুটিতে ছিলেন। বর্তমানে স্বামীর সঙ্গে বগুড়ার গাবতলী কাগইল ইউনিয়নের বাড়িতে বসবাস করছেন তিনি। ওই শিশুটি তাদের প্রতিবেশী আনিছুর রহমান পাশা ও শারমীন দম্পতির বলে জানা গেছে।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *


Our Like Page