February 22, 2024, 3:19 am
শিরোনামঃ
শহিদ মিনারে বাংলাদেশ পুলিশ সার্ভিস অ্যাসোসিয়েশনের শ্রদ্ধা জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের সমাধি স্থলে জেলা পুলিশের পক্ষে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধাঞ্জলি জ্ঞাপন শহিদ মিনারে পুনাক ও বিপিডব্লিউএন এর শ্রদ্ধা জামালপুর ও নেত্রকোনা জেলা খাদ্য বিভাগে নানা অনিয়ম ও দুর্নীতি একুশের প্রথম প্রহরে ময়মনসিংহ জেলা পুলিশের শ্রদ্ধা চন্দ্রগঞ্জ থানা বিশেষ অভিযানে ১২৫০ পিছ ইয়াবা ৫০০ গ্রাম গাজাসহ গ্রেফতার ১ জাহিদুল ইসলাম জাহিদ শটপিচ টুর্নামেন্টের উদ্বোধন করেন গোলাম ফারুক পিংকু এমপি একুশের প্রথম প্রহর রাত ১২:০১ মিনিটে ভাষা শহীদদের প্রতি জেলা পুলিশের শ্রদ্ধাঞ্জলি জ্ঞাপন ভাষা আন্দোলন বাঙালি জাতীয়তাবাদের ভিত্তি রচনা করেছিল– রবীন্দ্র বিশ্ববিদ্যালয় উপাচার্য ভাষা শহীদদের প্রতি আইজিপি, ডিএমপি কমিশনারের শ্রদ্ধা
নোটিশঃ
আপনার আশেপাশের ঘটে যাওয়া খবর এবং আপনার ব্যবসার বিজ্ঞাপন প্রচারের জন্য যোগাযোগ করুন মানবাধিকার খবরে।

খিলক্ষেতে মুক্তিপণের দাবিতে অপহৃত যুবক উদ্ধার, ৪ ছিনতাইকারী গ্রেফতার

Reporter Name

প্রথম বাংলা – রাজধানীর খিলক্ষেত থানা এলাকা থেকে অপহৃত এক যুবককে উদ্ধার করে ৪ জন ছিনতাইকারীকে গ্রেফতার করেছে ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের (ডিএমপি) খিলক্ষেত থানা পুলিশ।

গ্রেফতারকৃতরা হচ্ছে মোঃ ইকবাল হোসেন হাওলাদার, মোঃ জাহাঙ্গীর জোমাদ্দার, মোঃ রাজু ও মোঃ আলামিন। গ্রেফতারের পর তাদের কাছ থেকে ছিনতাইয়ে ব্যবহৃত ১টি প্রাইভেটকার, ৫টি মোবাইল ফোন, একটি চাকু, একটি গামছা, রশি ও নগদ ৯৪,৭০০ টাকা উদ্ধার করা হয়।

গতকাল সোমবার গাজীপুরের বাসন থানার সালনা বাজার ও ঢাকার খিলক্ষেতের নিকুঞ্জ-২ এলাকায় অভিযান চালিয়ে তাদেরকে গ্রেফতরা করা হয়।

আজ মঙ্গলবার সকালে গুলশানে নিজ কার্যালয়ে সাংবাদিকদের সাথে ব্রিফিংয়ে এ বিষয়ে বিস্তারিত জানান গুলশান বিভাগের উপ-পুলিশ কমিশনার মোঃ শহিদুল্লাহ বিপিএম-সেবা, পিপিএম-সেবা।

তিনি বলেন, গত সোমবার সকালে অপহৃত রিমন চন্দ্র দে-র বাবার কাছে তার মোবাইল নাম্বার থেকে ফোন আসে। ছেলের ফোন রিসিভ করার পর অপর পাশ থেকে এক ব্যক্তি বলে, ”আপনার ছেলে আমাদের কাছে জিম্মি, ছেলেকে সুস্থ শরীরে ফেরত পেতে চাইলে ৫ লক্ষ টাকা মুক্তিপণ দিতে হবে”। কিছুক্ষণ পর অপহরণকারীরা আবার ফোন করে ‘নগদ’ সার্ভিসের ৩টি নাম্বর দিয়ে ৫ লক্ষ টাকা দিতে বলে। উপায় না পেয়ে ভিকটিমের বাবা তাদের দেয়া নাম্বরে নগদ ১ লক্ষ ৭৫ হাজার টাকা পাঠিয়ে দেন। এ বিষয়ে ভিকটিমের বাবা খিলক্ষেত থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করেন।

উপ-পুলিশ কমিশনার মোঃ শহিদুল্লাহ আরো জানান, অভিযোগ পেয়ে খিলক্ষেত থানা পুলিশের দুটি টিমকে নিয়োজিত করা হয়। তথ্য প্রযুক্তির সহায়তায় ক্যান্টনমেন্ট জোনের অতিরিক্ত উপ-পুলিশ কমিশনার ইফতেখায়রুল ইসলাম, পিপিএম-এর নেতৃত্বে ক্যান্টনমেন্ট জোনের সহকারী পুলিশ কমিশনার মেরিনা আক্তারসহ খিলক্ষেত থানার একটি টিম ওই দিনই অপহৃত রিমনকে উদ্ধার করে এ ঘটনায় জড়িত ৪ জনকে গ্রেফতার করতে সক্ষম হয়।

রিমনের বাবা রঞ্জিত চন্দ্র দে ছেলেকে পেয়ে আবেগে আপ্লুত হয়ে পরেন। তিনি বলেন, আমি খিলক্ষেত থানায় অভিযোগ করার মাত্র ৪-৫ ঘণ্টার মধ্যে আমার ছেলেকে তারা উদ্ধার করেছে। পুলিশের আন্তরিকতা ও তাদের তাৎক্ষণিক পদক্ষেপের জন্য আমার ছেলেকে আমি অক্ষত অবস্থায় ফিরে পেয়েছি। এজন্য খিলক্ষেত থানা পুলিশের প্রতি আমি কৃতজ্ঞ।

উপ-পুলিশ কমিশনার মোঃ শহিদুল্লাহ আরো জানান, গ্রেফতারকৃতরা একটি সংঘবদ্ধ ছিনতাইকারী চক্র। তারা রাজধানীর বিভিন্ন এলাকায় ছিনতাই ও অপহরণ করে মুক্তিপণ আদায় করতো। গ্রেফতারকৃত প্রত্যেকের বিরুদ্ধে রাজধানীর বিভিন্ন থানায় একাধিক মামলা রয়েছে।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *


Our Like Page