April 19, 2024, 2:59 pm
শিরোনামঃ
মধুপুরে জমিসংক্রান্ত বিরোধের জেরে প্রবাসীকে মারপিট করে গুরুতর আহত মুজিবনগর দিবস উপলক্ষ্যে রাজশাহী জেলা ও নগর আ. লীগের উদ্যোগে বিশাল জনসভা গোপালগঞ্জের উরফি সিধকেটে ঘরে ঢুকে এসিড নিক্ষেপ ব্যপারটা রহস্যজনক বলে মনে করছে এলাকাবাসী ময়মনসিংহ কেন্দুয়া গণপুর্ত উপ বিভাগে অনিয়ম ও দুর্নীতি ঝুলন্ত লাশের বিচারের দাবিতে মানববন্ধন মঠবাড়িয়া’য় প্রধান শিক্ষকের অনৈতিক কর্মকান্ডের প্রতিবাদে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি ও দাবিতে মানববন্ধন শাহজাদপুরে প্রাণীসম্পদ সেবা সপ্তাহ ও প্রদর্শনী অনুষ্ঠিত মেলান্দহে অটো চোর চক্রের ২ সদস্য গ্রেফতার লক্ষ্মীপুরে ছাএ নেতা সজীব হত্যা, প্রতিবাদে উওাল রাজপথ কেন্দুয়ায় ব্যাপক উৎসাহ উর্দিপনায় বাংলা নববর্ষ পালিত
নোটিশঃ
আপনার আশেপাশের ঘটে যাওয়া খবর এবং আপনার ব্যবসার বিজ্ঞাপন প্রচারের জন্য যোগাযোগ করুন মানবাধিকার খবরে।

জাজিরায় রাতের আধারে একজনকে কুপিয়ে হত্যা

Reporter Name

মোঃ রাশেদুল ইসলাম রিয়াদ, জাজিরা (শরীয়তপুর) প্রতিনিধিঃ

শরীয়তপুরে জাজিরায় পূর্ব শত্রুতার জের ধরে জনাব মন্টু বেপারী (৬০) নামের একজনকে কুপিয়ে হত্যা করেছে দূর্বৃত্তরা। এসময় জনাব বাবু বেপারী নামের আরও একজন আহত হয়েছেন।

শুক্রবার (১মার্চ) সন্ধ্যা ৭টার দিকে উপজেলার সেনেরচর ইউনিয়নের সাকিম আলী মুন্সি কান্দি গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

নিহত মন্টু বেপারী (৬০) উপজেলার চরধুপুড়িয়া গ্রামের বাসিন্দা মৃত জনাব আরশেদ আলী বেপারীর ছেলে। আহত বাবু বেপারী (২৬) একই এলাকার ইদ্রিস বেপারীর ছেলে।

পূর্ব শত্রুতার জের ধরে পরিকল্পিতভাবে এ হত্যাকাণ্ডের ঘটনা ঘটেছে বলে দাবি করছেন নিহতের স্বজনরা।

স্থানীয় ও পুলিশ সুত্রে জানা যায়, আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে একই গ্রামের জনাব এমদাদ মাদবরের পূর্ব থেকেই শত্রুতা চলে আসছিলো জনাব মন্টু বেপারীর। আরও জানা যায়,বছর  তিনেক আগে মন্টু বেপারী ও এমদাদ মাদবরের সাথে আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে সংঘর্ষ হয়েছিলো। উক্ত সংঘর্ষে দুই পক্ষের দুজন নিহত হয়েছিলো।

আজ শুক্রবার সন্ধ্যায় একটি বিয়ের অনুষ্ঠানে অংশগ্রহণ শেষে মোটরসাইকেল যোগে ছেলে মুসা ও তার ভাগিনা বাবু বেপারীকে সাথে নিয়ে বাড়ি ফিরছিলেন। চরধুপুড়িয়া এলাকার এমদাদ মাদবরের বাড়ির সামনে আসলে পুর্ব থেকেই ওৎপেতে থাকা সন্ত্রাসীরা তাদের উপর হামলা চালায়। হামলার পরে মন্টু বেপারী মোটরসাইকেল থেকে মাটিতে পরে যায় এবং তিনি হামলাকারীদের থেকে বাচঁতে স্থানীয় মালেক মাদবরের বসত ঘরে দৌড়ে অবস্থান করে। এরপর হামলাকারীরা উক্ত ঘরে ঢুকে তাকে এলোপাথাড়ি কুপিয়ে জখম করে। এসময় চাচাকে বাচাতে গিয়ে বাবু বেপারী আহত হয় এবং তার বাম হাতের দুটি আঙ্গুল পরে যায়।

পরে নিহত মন্টূ বেপারীর ছেলে মুসা বেপারী (৯) হামলাকারীদের থেকে পালিয়ে বাড়িতে গিয়ে স্বজনদের খবর দিলে তারা ঘটনা স্থলে আসে।
ততক্ষণে হামলাকারীরা মন্টু বেপারীকে কুপিয়ে জখম করে ঘটনাস্থল থেকে পালিয়ে যায়।

পরিবার ও স্থানীয়রা তাদের উদ্ধার করে জাজিরা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক মন্টু বেপারীকে মৃত ঘোষনা করেন। আহত বাবু বেপারীকে প্রাথমিক চিকিৎসা শেষে উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকা প্রেরণ করা হয়।

নিহত মন্টু বেপারীর ছেলে মুসা বেপারী খবরপত্রকে বলেন, আমি আমার বাবার সাথে বিয়ের দাওয়াতে গিয়েছিলাম। বাড়িতে আসার পথে প্রায় ১০-১২জন লোক আমার বাবার উপর হামলা চালায়। আমাকেও মারার জন্য হামলা করেছিলো। পরে আমি দৌড়ে পালিয়ে চলে আসি। আমি আমার বাবার হত্যাকারীদের ফাঁসি চাই।

হাসপাতালে নিহতের লাশ নিয়ে আহাজারি করছিলেন তার ভাগিনা ফারুক সরদার। তিনি বলেন, আমার মামাকে পরিকল্পিতভাবে হত্যা করা হয়েছে। তার সঙ্গে স্থানীয় এমদাদ মাদবরের সাথে বিরোধ চলছিলো। যারা যারা আমার মামাকে হত্যা করেছে তাদের শাস্তি চাই।

উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের কর্তব্যরত চিকিৎসক ডাঃ জমাব নাজিম উদ্দিন বলেন, গুরুতর আহতাবস্থায় দুইজনকে হাসপাতালে আনা হয়েছিলো। ধারনা করা হচ্ছে অতিরিক্ত রক্তক্ষরণের জন্য মন্টু বেপারীর মৃত্যু হয়েছে। অপরজনকে আমরা প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকা প্রেরণ করেছি।

জাজিরা থানার অফিসার ইনচার্জ জনাব হাফিজুর রহমান বলেন, এলাকায় আধিপত্য বিস্তার নিয়ে দীর্ঘদিনের শত্রুতা ছিল। এই শত্রুতার জের ধরেই মন্টু বেপারী নামের একজনকে কুপিয়ে হত্যার ঘটনা ঘটেছে। খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠানো হয়েছে। জনাব মন্টু বেপারীর মরদেহ ময়না তদন্তের জন্য সদর হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। এ ঘটনায় এখনও কোনো মামলা হয়নি। মামলা হলে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *


Our Like Page