May 26, 2024, 5:38 pm
শিরোনামঃ
উপকূলে ৮-১২ ফুট জলোচ্ছ্বাস, পাহাড়ে হতে পারে ভূমিধস সব মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তা-কর্মচারীদের ছুটি বাতিল ডিআরইউ সদস্য সন্তানদের সাঁতার প্রশিক্ষণ কার্যক্রম-২০২৪ শুরু মাত্র ৫০০০ টাকার বিনিময়ে এমপি আনারের দেহ ৮০ টুকরো করা হয়, কসাই জিহাদের স্বীকারোক্তি দেশে ফিরে থলের বিড়াল বের করে দেব: নিপুণ বিনোদন প্রতিবেদক কুড়িগ্রামে অসহায় দৃষ্টি প্রতিবন্ধী নুর নবী পরিবার নিয়ে চরম দুর্ভোগে দিনাতিপাত করছে ঘূর্ণিঝড় মোকাবিলায় মন্ত্রণালয়ের সব প্রস্তুতি রয়েছে – দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ প্রতিমন্ত্রী শাহজাদপুরে সাংবাদিকের ওপর হামলা, থানায় অভিযোগ দায়ের ডিএমপি সদস্যদের অগ্নিনির্বাপণ বিষয়ক প্রশিক্ষণ কর্মশালা অনুষ্ঠিত এমপি আনারকে হত্যার পর হাড় ও মাংস আলাদা করে হলুদ মেশানো হয়’
নোটিশঃ
আপনার আশেপাশের ঘটে যাওয়া খবর এবং আপনার ব্যবসার বিজ্ঞাপন প্রচারের জন্য যোগাযোগ করুন মানবাধিকার খবরে।

জেলা পরিষধ নির্বাচনে সদস্য প্রার্থী পলাশকে আবারো দেখতে চায় সর্বস্তরের জনগণ

Reporter Name

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ– বরিশালের বাকেরগঞ্জে জেলা পরিষধ নির্বাচনে আবারো সদস্য হিসেবে নিয়ামত আব্দুল্লা পলাশকে দেখতে চান তৃনমূলের নেতাকর্মী সহ উপজেলার সাধারণ জনগণ। সরকারের উন্নয়নমূলক কর্মকাণ্ড ও আধুনিক বাকেরগঞ্জ উপজেলা গড়ার অক্লান্ত পরিশ্রম করে যাচ্ছেন এই প্রজ্ঞাবান নেতা।

ধর্ম ভিরু এই নেতা প্রায় সকল শ্রেণি পেশার মানুষের নয়নের মনি-বিশেষনে অভিসিক্ত। অসহায় মেহনতি মানুষের বন্ধু।

স্থানীয়রা জানান, ভরপাশা ইউনিয়নের কৃতিসন্তান নিয়ামত আব্দুল্লা পলাশ ছোটবেলা থেকেই মানুষের দু:খ দুর্দশায় নিজেকে সর্বদা ব্যস্ত রাখতেন। বিবেকের ব্যাকুলতায় যখন যেভাবে পারতেন অসহায়দের পাশে দাড়িয়ে বাড়িয়ে দিয়েছেন সহয়তার কোমল দু’হাত।

মানুষের দু:খ-দুর্দশা লাঘবের অক্রিতিম বিবেক বোধ মুক্তিযুদ্ধের চেতনা দেশত্ববোধের গভিরতার টানে তিনি নিজেকে জড়িয়েছেন ছাত্র রাজনীতিতে। স্বাধীনতার স্থপতি জাতির জনক বঙ্গবন্ধুর আদর্শিক রাজনীতি মিশে আছে তার হৃদয়ে।

১৯৯৮ সালে সরকারি বাকেরগঞ্জ কলেজের জিএস দায়িত্ব গ্রহণের মধ্য দিয়ে ১৪ টি ইউনিয়নে ছাত্র রাজনীতিতে অবাধ বিচরন। অত্যন্ত সুনামের সাথে সাংগঠনিক দক্ষতায় জেলা নেতাদের হৃদয়ে স্থান দখল করে নেন তিনি।

এরই ধারাবাহিকতায় উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি হিসেবে তিন বছর দায়িত্বে থেকে উপজেলা ছাত্রলীগকে আরো সুসংগঠিত করেন। ২০১২ সালে দায়িত্ব পান বাকেরগঞ্জ উপজেলা আওয়ামীলীগ প্রচার সম্পাদক হিসেবে।

২০১৬ সালে ডিসেম্বরে নির্বাচি হন জেলা পরিষদের সদস্য হিসেবে। বর্তমনে তিনি উপজেলা আওয়ামীলেগের যুগ্ন সাধারন সম্পাদক দায়িত্বে রয়েছেন।

জেলা পরিষদের সদস্য নির্বাচিত হয়ে প্রথমেই তিনি পৌরসভার ৪ নং ওয়ার্ডে শ্রীমন্ত নদীর উপর সেতু নির্মান করেন, বাকেরগঞ্জ থানা মসজিদ সহ মাদ্রাসা, স্কুল, বিভিন্ন ইউনিয়নে মসজিদ মন্দির অসংখ্য শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে জেলা পরিষধের অর্থ বরাদ্দ দিয়েছেন।বিভিন্ন ইউনিয়নের রাস্তাঘাট সহ ব্রীজ কালভার্ড নির্মান করেছেন জেলা পরিষদের অর্থায়নে।

উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক পৌর মেয়র লোকমান হোসেন ডাকুয়ার স্নেহধন্য নিয়ামত আব্দুল্লা পলাশ লোকমান হোসেন ডাকুয়ার নেতৃত্বে উপজেলা আওয়ামী লীগ সাংগঠনিক ভাবে শক্তিশালী করেছেন।

রাজনৈতিক জীবনে অনেক বাধা-বিপত্তি এসেছে,কিন্তু নিজে কখনো বঙ্গবন্ধুর আদর্শ থেকে বিচলিত হননি।সিন্ডেকেট কোরাম কে ভ্রাতিত্বের বন্ধনে জরিয়ে এগিয়ে চলছেন সব প্রতিবন্ধকতাকে পেছনে ফেলে। আর তার কর্মের ফলও তিনি পেয়েছেন প্রিয় সংগঠন থেকে।

রাজনৈতিক অঙ্গনে কাজ করতে গিয়ে দলের নেতাকর্মী ও সমর্থকদের যেমন অকুণ্ঠ সমর্থন ও সহযোগিতা পেয়েছেন। তেমনি তিনি প্রিয় বাকের গঞ্জবাসীর স্নেহ-ভালোবাসা পেয়ে ধন্য হচ্ছেন। তাদের প্রেরণায়ই তিনি এগিয়ে চলছেন নিরন্তর। প্রচেষ্টা চালাচ্ছেন বাকেরগঞ্জ উপজেলাবাসীর সেবা করার।

নিয়ামত আব্দুল্লা পলাশ জানান, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের আদর্শের একজন ‘সৈনিক’ হিসেবে সারা জীবন মানুষের সেবা করতে চাই।

উপজেলার বিভিন্ন ইউনিয়নের নেতাকর্মী জনপ্রতিনিধি ও সাধারণ জনগণেন সাথে কথা হলে তারা জানান, একটি উন্নত ও আধুনিক উপজেলা গড়তে তাকে আবারো জেলা পরিষদের সদস্য হিসেবে দেখতে চান বাকেরগঞ্জ উপজেলার সর্বস্তরের জনগন।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *


Our Like Page