May 26, 2024, 8:10 am
শিরোনামঃ
ডিআরইউ সদস্য সন্তানদের সাঁতার প্রশিক্ষণ কার্যক্রম-২০২৪ শুরু মাত্র ৫০০০ টাকার বিনিময়ে এমপি আনারের দেহ ৮০ টুকরো করা হয়, কসাই জিহাদের স্বীকারোক্তি দেশে ফিরে থলের বিড়াল বের করে দেব: নিপুণ বিনোদন প্রতিবেদক কুড়িগ্রামে অসহায় দৃষ্টি প্রতিবন্ধী নুর নবী পরিবার নিয়ে চরম দুর্ভোগে দিনাতিপাত করছে ঘূর্ণিঝড় মোকাবিলায় মন্ত্রণালয়ের সব প্রস্তুতি রয়েছে – দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ প্রতিমন্ত্রী শাহজাদপুরে সাংবাদিকের ওপর হামলা, থানায় অভিযোগ দায়ের ডিএমপি সদস্যদের অগ্নিনির্বাপণ বিষয়ক প্রশিক্ষণ কর্মশালা অনুষ্ঠিত এমপি আনারকে হত্যার পর হাড় ও মাংস আলাদা করে হলুদ মেশানো হয়’ মানবতার সেবায় নিয়োজিত আনার নিজেই চালাতেন অ্যাম্বুলেন্স কলকাতায় এমপি আনার খুন, দেশে আটক ৩
নোটিশঃ
আপনার আশেপাশের ঘটে যাওয়া খবর এবং আপনার ব্যবসার বিজ্ঞাপন প্রচারের জন্য যোগাযোগ করুন মানবাধিকার খবরে।

Reporter Name

রাজীবপুরে মোসলেমের বাড়ী থেকে পতিতা আটক।

সুলতানা রাজিয়া সান্ধ্য কবিঃ
তম৩০.০৯.২০২২ খ্রিঃ

কুড়িগ্রামের রাজীবপুর উপজেলার ধুড়াউড়ি স্লুইস গেট নামক এলাকায় মোসলেম উদ্দিনের(৫০) বাড়ী থেকে এক পতিতা কে আটক করেছে রাজীবপুর থানা পুলিশ।

এলাকাবাসীর অভিযোগের ভিত্তিতে রাজীবপুর থানা পুলিশ মোসলেম উদ্দিনের বাড়িতে অভিযান পরিচালনা করে একটি সুন্দরী পতিতাকে আটক করেছে।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক ঐ এলাকার শতশত জনগণের অভিযোগ মোসলেম উদ্দিন তার বাড়িতে দীর্ঘ দিন থেকে নানা অনৈতিক কার্যকলাপ করে আসছে তার বাড়ীতে। তিনি শুধু পতিতার ব্যাবসায়ী করে না তিনি ইয়াবা,গাঁজা, মদ,জুয়া সহ নানা ধরনের অপরাধ ও সামাজিক অবক্ষয় মূলক কর্মকান্ড সংগঠিত করে আসছে তার নিজ বাড়ীতে।

আজ শুক্রবার বিকাল ৫ টায় একটি পতিতা তার বাড়ীতে ঢুকে পড়লে ঐ এলাকার শতশত মানুষ ঘেরাও করে বাড়ীটি কিন্তু। তবে অভিযানের সময় মোসলেম উদ্দিনকে আটক করতে পারেনি থানা পুলিশ। পরে এক পতিতাকে আটক করে নিয়ে আসে। আটকের সময়, ওই বাড়িতে একজন পতিতা ছাড়া আর কেউ ছিলো না বলে জানা যায়।

এলাকাবাসীর দাবি মোসলেম উদ্দিনকে আটক করে তার বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করার,যাতে ভবিষ্যতে কেউ এমন অনৈতিক কার্যক্রম করার সাহস না পায়। এবিষয়ে মুঠো ফোনে মোসলেম উদ্দিনের সাথে যোগাযোগের চেষ্টা করা হলেও তাকে পাওয়া যায়নি।জানা গেছে

মোসলেম উদ্দিন রাজীবপুর উপজেলা শহরে জেনারটর এবং চাউল ব্যবসার সাথে জড়িত।তিনি উপজেলার সদর ইউনিয়নের জহির মন্ডল পাড়া গ্রামের একজন বাসিন্দা। নব্বইয়ের দশকে ভিসিআর ও জেনারেটর ব্যবসা দিয়ে তিনি রাজীবপুরে প্রবেশ করে পরবর্তীতে পতিতা ও সুদের কারবার করে লক্ষ্য লক্ষ্য টাকার মালিক হন।গত কয়েক বছর হলো স্লুইস গেট এলাকায় একটি তিন তলা বাড়ী করে বাড়ির কাজ অসম্পূর্ণ রেখেই সেখানে নানা ধরনের অনৈতিক কাজ শুরু করেন।

ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে রাজীবপুর থানার তদন্ত ওসি আতাউর রহমান বলেন, এলাকাবাসি ওই বাড়ী ঘেরাও করে রাখে পরে পুলিশ খবর পেয়ে ওই নারীকে আটক করে থানা হেফাজতে আনা হয়।তার বিরুদ্ধে আইনীগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *


Our Like Page